1. dailybanglarkhabor2010@gmail.com : দৈনিক বাংলার খবর : দৈনিক বাংলার খবর
সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ০১:৪৩ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
বিটিভিতে ভয়াবহ আগুন, সম্প্রচার বন্ধ বিটিভিতে ভয়াবহ আগুন, সম্প্রচার বন্ধ পুলিশের ওয়েবসাইট হ্যাক মহাখালীতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ভবনে হামলা, আগুন দিল দুর্বৃত্তরা ‘আমার বাচ্চাকে ওরা মেরে ফেলেছে’ কোটা সংস্কার নিয়ে প্রয়োজনে সংসদে আইন পাস, বললেন জনপ্রশাসনমন্ত্রী সরকার শিক্ষার্থীদের ওপর বেআইনিভাবে শক্তি প্রয়োগ করেছে-অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল কোটা সংস্কার আন্দোলন: উত্তরায় নিহত ৫ দাকোপে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের উদ্যোগে প্রতিবাদ সমাবেশ ও স্মারকলিপি প্রদান জাতীয় শোক দিবস পালনের প্রস্তুতিসভা অনুষ্ঠিত সাংবাদিক শরিফ ও বেনজীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দায়ের করায় রূপসা প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের নিন্দা

১০০ ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড বাবরের

  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৫ আগস্ট, ২০২৩
  • ১৬৯ বার পড়া হয়েছে

ক্রীড়া প্রতিবেদক::পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম বৃহস্পতিবার একটি বড় রেকর্ড গড়েছেন। ভিভ রিচার্ডস, বিরাট কোহলির মতো কিংবদন্তিদের ছাপিয়ে তিনি ওডিআই ক্রিকেটে বিশ্বরেকর্ড গড়ে ফেলেছেন। বাবর আজম ১০০টি ওয়ানডে ইনিংস খেলার পরে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী হয়েছেন। ওডিআইতে ১০০ ইনিংস খেলার পর বাবরই একমাত্র ব্যাটার, যিনি পাঁচ হাজারের বেশি স্কোর করেছেন।

বৃহস্পতিবার আফগানিস্তান এবং পাকিস্তানের মধ্যে দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচের সময়ে বাবর এই মাইলফলক স্পর্শ করেন। ভারতীয় তারকা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি এই তালিকায় অনেকটাই পিছনে রয়েছেন। তিনি রয়েছেন নবম স্থানে। বাবর এদিন হাশিম আমলাকে ছাপিয়ে বিশ্ব রেকর্ডের মালিক হয়েছেন। বাবর আজম এদিন ৬৬ বলে ৫৩ রান করেন। এই রানের হাত ধরেই তিনি পৌঁছে যান ৫০৮৯ রানে। যেটা ওডিআই ক্রিকেটে ১০০ ইনিংস খেলা কোনো ব্যাটারের সর্বোচ্চ রান।

এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন হাসিম আমলা। তার সংগ্রহ আবার ৪,৯৪৬ রান। ভিব রিচার্ডস রয়েছেন তিনে। তিনি আবার ওডিআই-এর ১০০ ইনিংসে ৪,৬০৭ পান করেছিলেন। বিরাট কোহলির আবার ১০০টি ওডিআই ইনিংস খেলার পর স্কোর ছিল ৪,২৩০। এই তালিকার প্রথম দশের মধ্যে ভারতের আর এক ক্রিকেটার রয়েছেন। শিখর ধাওয়ান রয়েছেন ছয়ে। অর্থাৎ কোহলিরও আগে। ১০০টি ওডিআই ইনিংস খেলার পর শিখরের সংগ্রহ ছিল ৪,৩৪৩ রান।

১০০টি ওয়ানডে ইনিংসে পাঁচ হাজার রান করতে বাবর আজম ১৮টি সেঞ্চুরি এবং ২৭টি হাফসেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন। প্রথম ম্যাচে বাবর সেভাবে কিছু না করতে পারলেও, দ্বিতীয় ম্যাচ পাকিস্তানের অধিনায়ককে সাবলীল লেগেছে। প্রতিভাবান ব্যাটসম্যান তার ২৭তম অর্ধশত রান পূরণ করার পাশাপাশি পাকিস্তানকে জিততেও সাহায্য করেছেন। প্রথম দুই ওডিআই জিতে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ পকেটে পুড়ে ফেলেছে পাকিস্তান।

বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নিজেদের সর্বোচ্চ দলগত ইনিংস গড়েও জিততে পারেনি আফগানিস্তান। শেষ ওভারের থ্রিলারে হার মানে তারা। শাদবকে নন-স্ট্রাইকার প্রান্তে রান-আউট করেও শেষ ওভারে ম্যাচ জেতাতে পারলেন না ফজলহক ফারুকি। ফের নাসিম শাহর কাছে মার খেয়ে আফগানিস্তানকে ম্যাচ হারালেন তিনি।

২০২২ সালের এশিয়া কাপে শেষ ওভারে ফারুকিকে একজোড়া ছক্কা হাঁকিয়ে ম্যাচ জিতিয়েছিলেন নাসিম। বৃহস্পতিবার হাম্বান্তোতায় ফারুকির শেষ ওভারে একজোড়া চার মেরে পাকিস্তানকে জয় এনে দিলেন নাসিম। ৫ বলে ১০ রান করে তিনি অপরাজিত থাকেন।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ান ডে ম্যাচে টস জিতে শুরুতে ব্যাট করতে নামে আফগানিস্তান। তারা নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৫ উইকেটের বিনিময়ে ৩০০ রানের বড়সড় ইনিংস গড়ে তোলে। ওপেন করতে নেমে রহমানউল্লাহ গুরবাজ একাই টপকান দেড়শো রানের গণ্ডি। ওয়ান ডে তথা আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ১৫১ রানের ইনিংস খেলে আফগান ওপেনার দলকে বড় রানের লক্ষ্যে পৌঁছে দেন।

আফগানিস্তান এই প্রথম পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে ক্রিকেটে ৩০০ রানের গণ্ডি স্পর্শ করে। অর্থাৎ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নিজেদের সর্বোচ্চ দলগত ইনিংসের রেকর্ড গড়ে আফগানিস্তান। তবে শেষ রক্ষা হলো না। ১ বল বাকি থাকতে ১ উইকেটে ম্যাচ জিতে সিরিজ পকেটে পোড়েন বাবররা। পাকিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ ৯১ রান করেন ইমাম উল হক। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫৩ রান বাবর করেছেন। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক বাংলার খবর
Theme Customized By BreakingNews