1. dailybanglarkhabor2010@gmail.com : দৈনিক বাংলার খবর : দৈনিক বাংলার খবর
বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:০৫ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত মুজিবনগর দিবসে জনসভা করবে আওয়ামী লীগ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে কারিকুলাম যুগোপযোগী করার তাগিদ রাষ্ট্রপতির হাছান মাহমুদের সাথে গ্রিসের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক অনিবন্ধিত ও অবৈধ নিউজ পোর্টাল বন্ধে পদক্ষেপ নেয়া হবে-তথ্য প্রতিমন্ত্রী বাগেরহাটে পাওনা টাকা চাওয়ায় বিকাশ এজেন্টকে মারধর ও টাকা লুটের অভিযোগ শিশুদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সকলের দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখতে হবে-সিটি মেয়র বাগেরহাট হার্ট ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বিনামূল্যে ৫’শ রোগিকে চিকিৎসা সেবা দাকোপে প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ প্রদর্শনী-২০২৪ উদযাপনে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহন ফরিদপুরে বাস-পিকআপ ভ্যানের সংঘর্ষ: নিহত বেড়ে ১৪

ডুমুরিয়ার পল্লী শ্রী বালিকা বিদ্যালয়ে ৪০ লাখ টাকার বাণিজ্যের অভিযোগ

  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ৩ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১৪৮ বার পড়া হয়েছে

প্রতিকী ছবি
অরুণ দেবনাথ ডমুরিয়া খুলনা::ডুমুরিয়া উপজেলার শোভনা ইউনিয়নের পল্লীশ্রী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে সহকারি প্রধান শিক্ষকসহ তিনটি পদে নিয়োগে ৪০ লাখ টাকার বাণিজ্য হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নিয়োগে অনিয়ম উৎকোচ গ্রহণসহ বিভিন্ন অভিযোগে গত ১ অক্টোবর খুলনা জেলা প্রশাসকের বরাবরে এলাকাবাসী অভিযোগ দিয়েছেন। অথচ এসব কিছুর তোয়াক্কা না করে বিদ্যালয়ের কমিটি তিড়িঘড়ি করে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে। খুলনা জেলা প্রশাসকের কাছে দেয়া অভিযোগ পত্রে জানা যায়, ডুমুরিয়া উপজেলার পল্লীশ্রী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে সহকারি প্রধান শিক্ষক, অফিস সহায়ক ও নিরাপত্তা কর্মী পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। কিন্তু এই নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে কমিটির কোন সভা হয়নি। সর্বসম্মতিক্রমে গঠণ করা হয়নি নিয়োগ কমিটিও। সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক মনগড়া কমিটির মাধ্যমে শিক্ষা অফিসকে ম্যানেজ করে নিযোগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে। অথচ স্থানীয় এলাকাবাসী ওই সব পদে নিয়োগ দিতে মোটা অংকের টাকার চুক্তি করে। এরমধ্য প্রধানশিক্ষক পদে ১৬ লাখ, অফিস সহায়ক পদে ১৩ লাখ ও নিরাপত্তা কর্মী পদে ১২ লাখ টাকার চুক্তি হয়। তবে মজার ব্যাপার হচ্ছে ওই অভিযোগ পত্রে যাদেরকে নিয়োগ দেয়া হচ্ছে এমন অভিযোগ দেয়া হয়েছে তারাই নিয়োগ পেয়েছেন। অভিভাবক ও কমিটির কতিপয় সদস্য বিষয়টি আচ করতে পেরে ক্ষুব্ধ হয়। স্কুলে নিয়োগ পরীক্ষা নিলে এলাকাবাসী বিক্ষোভ করতে পারে বা বাঁধা দিতে পারে এমন শঙ্কায় খুলনায় এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এ বিষয়ে বিদ্যালযের অভিভাবক সদস্য সুব্রত বিশ্বাস বলেন, নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে কোন সভা আহবান করা হয়নি। কোন নিয়োগ গঠণ হয়েছে এমনটাও জানা যায়নি। মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি কিশোর কুমার মিস্ত্রী তার ভাই অনুপ মিস্ত্রিকে নিয়োগ দিয়েছেন। এ বিষয়ে জানতে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সিদ্ধার্থ মল্লিকের সেল ফোন ( ০১৭১১০২৯৬৬১) নম্বরে কয়েকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি। অপরদিকে সভাপতির ফোন নম্বর বন্ধ পাওয়া গেছে। এদিকে ডুমুরিয়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার দেবাশীষ কুমার বিশ্বাস বলেন, নিয়োগ পরীক্ষায় কোন অনিয়ম হয়নি। কমিটির কেউ টাকা নিয়েছে কিনা আমার জানা নেই। ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাহি অফিসার শরীফ আসিফ রহমান বলেন, এলাকাবাসী জেলা প্রশাসক মহোদয়ের নিকট যে অভিযোগ দিযেছেন সেটি আমি জেনেছি। তিনি ব্যবস্থা নেয়া বা তদন্ত করার কথা বললে এ বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক বাংলার খবর
Theme Customized By BreakingNews