1. dailybanglarkhabor2010@gmail.com : দৈনিক বাংলার খবর : দৈনিক বাংলার খবর
শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৬:০১ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
বিটিভিতে ভয়াবহ আগুন, সম্প্রচার বন্ধ বিটিভিতে ভয়াবহ আগুন, সম্প্রচার বন্ধ পুলিশের ওয়েবসাইট হ্যাক মহাখালীতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ভবনে হামলা, আগুন দিল দুর্বৃত্তরা ‘আমার বাচ্চাকে ওরা মেরে ফেলেছে’ কোটা সংস্কার নিয়ে প্রয়োজনে সংসদে আইন পাস, বললেন জনপ্রশাসনমন্ত্রী সরকার শিক্ষার্থীদের ওপর বেআইনিভাবে শক্তি প্রয়োগ করেছে-অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল কোটা সংস্কার আন্দোলন: উত্তরায় নিহত ৫ দাকোপে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের উদ্যোগে প্রতিবাদ সমাবেশ ও স্মারকলিপি প্রদান জাতীয় শোক দিবস পালনের প্রস্তুতিসভা অনুষ্ঠিত সাংবাদিক শরিফ ও বেনজীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দায়ের করায় রূপসা প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের নিন্দা

সেন্ট মার্টিনে আটকা পড়ল জবির ৪০ শিক্ষক-শিক্ষার্থী

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ৫ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১৬৬ বার পড়া হয়েছে

কক্সবাজার সেন্ট মার্টিনে বার্ষিক ট্যুরে গিয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের তিনজন শিক্ষকসহ চতুর্থ বর্ষের ৪০ জন শিক্ষক-শিক্ষার্থী আটকে পড়েছেন।

বুধবার (৪ অক্টোবর) সকালে আসার কথা থাকলেও আবাহাওয়ার তিন নম্বর সতর্ক সংকেত থাকায় তারা আসতে পারেননি।

আবদুল বারেক নামের এক শিক্ষার্থীর ফেসবুক পোস্টের মাধ্য বিষয়টি আলোচনায়। আবদুল বারেক লেখেন, ৩৮ জন শিক্ষার্থীদের নিয়ে সেন্টমার্টিন শিক্ষা সফরে এসে প্রচন্ড লঘুচাপ এবং সাগর উত্তাল থাকায় জাহাজ চলাচল বন্ধ হওয়ার কারণে আমরা দুদিনের বদলে তৃতীয় অতিক্রান্ত করছি। আগামীকাল ও নাকি শিফ চলাচল বন্ধ, এইখানে প্রচুর খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত রবিবার (১ অক্টোবর) সহকারী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আলী ও নুসরাত সুলতানার তত্ত্বাবধানে ৩৮ শিক্ষার্থী নিয়ে ৪০ সদস্যের একটি দল সেন্ট মার্টিনে যান। কিন্তু, সেখানে বৈরী আবহাওয়ার জন্য জাহাজ চলাচল বন্ধ থাকায় আটকে পড়েন। পর্যাপ্ত দিনের আলো না থাকায় মুঠোফোনের নেটোয়ার্ক বিচ্ছিন্ন হয়েছে বলে জানা গেছে।

সবাই নিরাপদে আছেন বলে নিশ্চিত করেছেন উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র উপদেষ্টা ও সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডক্টর কাজী সাখাওয়াত হোসেন। তিনি বলেন, আমি কিছুক্ষণ আগেও ওখানে যারা আছেন তাদের সাথে কথা বলেছি। এখনো সকলের স্বাভাবিক অবস্থায়ই রয়েছে। আর খাদ্য সংকট এখনো তেমন দেখা দেয়নি। ওখানে পর্যাপ্ত শুকনো খাবার মজুদ রয়েছে বলে জানতে পেরেছি। সাগর একটু উত্তাল থাকায় ও বৈরী আবহাওয়ার কারণে আটকা পড়ে গেছে। আমরা সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখার চেষ্টা করছি কোন সমস্যা হবে না।

জাহাজ চলাচল বন্ধর জন্য ফিরতে না পারার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ড. মোহাম্মদ আলী বিকেল পৌনে পাঁচটায় একটি ভিডিও বার্তার মাধ্যমে জানান, এখানকার আবহাওয়া এখন ভালো। কিন্তু, শিপ এজেন্সীগুলো জাহাজ বন্ধ রাখায় আমাদের দেরী হচ্ছে। চালু হলেই আমরা ফিরতে পারব।

উল্লেখ্য, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে গেল শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কসংকেত জারি করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক বাংলার খবর
Theme Customized By BreakingNews