1. dailybanglarkhabor2010@gmail.com : দৈনিক বাংলার খবর : দৈনিক বাংলার খবর
সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৯:৫৬ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
লিভ পার্টনারের একাধিক সম্পর্ক জেনেই সুস্মিতার আত্মহত্যা এমপি আনোয়ারুল আজিমের সর্বশেষ অবস্থান ভারতের উত্তরপ্রদেশ-ডিবিপ্রধান দুর্ঘটনার কবলে ইরানের প্রেসিডেন্টকে বহনকারী হেলিকপ্টার ‘ফিজ’ নামের রহস্য জানালেন মুস্তাফিজ পাইকগাছায় কৃষি যন্ত্রপাতি বিতরণ ও কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত সেবার মান বৃদ্ধি ও স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দিলেন এমপি রশীদুজ্জামান পাকিস্তানে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ১৪ জন নিহত সিঙ্গাপুরে ফের করোনার হানা, আক্রান্ত প্রায় ২৬ হাজার যুক্তরাজ্যে এখন শিশুদের ২য় জনপ্রিয় নাম ‘মোহাম্মদ’ চাকরির পেছনে না ছুটে উদ্যোক্তা হওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

ইমন হত্যাকান্ডে পেস্টিং মামুন গ্রেপ্তার,অস্ত্রগুলি উদ্ধার

  • প্রকাশিত: শনিবার, ৭ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৭৮ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধি::খুলনার রং মিস্ত্রী ইমন শেখ হত্যাকান্ডের আরেক আসামি মামুন হাওলাদার ওরফে পেস্টিং মামুনকে গ্রেপ্তার করেছে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। তার কাছ থেকে ১ টি বিদেশী রিভলবার, ৬ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। শুক্রবার রাতে সোনাডাঙ্গা মডেল থানার গোবরচাকার শাহিনুর মসজিদ রোড এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।
মামুনকে আশ্রয় দেওয়ায় মাদক কারবারি চিংড়ি পলাশের স্ত্রী পারভীন সুলতানা টিকলি ও ভায়রা সেলিমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের কাছ ১ হাজার ৩৫০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।
রোববার দুপুরে কেএমপি সদর দপ্তারে এক প্রেসব্রিফিংয়ে পুলিশ কমিশনার মো. মোজাম্মেল হক জানান, গত ৫ অক্টোবর রাতে নগরীর গোবরচাকা এলাকায় ইমন শেখ হত্যাকান্ডের শিকার হন। ওই রাতেই ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। শনিবার রাতে মামলার ৪নং আসামি মামুন হাওলাদার ওরফে পেস্টিং মামুনকে গ্রেপ্তার করা হয়। মামুনের বিরুদ্ধে ১টি দস্যুতা, ২টি মারামারিসহ মোট ১৩টি মামলা রয়েছে।
জিজ্ঞাসাবাদে মামুন জানায়, সে মাদক কারবারি পলাশ ওরফে চিংড়ি পলাশের বাড়িতে অবস্থান করেন। পরে চিংড়ি পলাশের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তার স্ত্রী পারভীন সুলতানা টিকলি এবং পলাশের ভায়রা সেলিম শেখকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে ১ হাজার ৩৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার টিকলির বিরুদ্ধে ১টি মামলা রয়েছে। চিংড়ি পলাশের বিরুদ্ধে হত্যা, মাদকসহ ১২টি মামলা রয়েছে। অস্ত্র, গুলি ও মাদক উদ্ধারের ঘটনায় সোনাডাঙ্গা থানায় পৃথক ৪টি মামলা হয়েছে।
প্রেসব্রিফিংয়ে কেএমপি’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম) সাজিদ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক এন্ড প্রটোকল) মোছাঃ তাসলিমা খাতুন, ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (সদর) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, বিশেষ পুলিশ সুপার (সিটিএসবি) রাশিদা বেগম, ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (ডিবি) বি.এম নুরুজ্জামান, ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (লজিস্টিকস অ্যান্ড সাপ্লাই) এম এম শাকিলুজ্জামান; ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (এফএন্ডবি) শেখ মনিরুজ্জামান মিঠু; ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মনিরা সুলতানা ও সোনাডাঙ্গা থানার ওসি মমতাজুল হক উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক বাংলার খবর
Theme Customized By BreakingNews