1. dailybanglarkhabor2010@gmail.com : দৈনিক বাংলার খবর : দৈনিক বাংলার খবর
শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ১০:১১ পূর্বাহ্ন

ইসরায়েলের বিমান হামলায় গাজার আশ্রয়কেন্দ্রে নিহত ৩৫

  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ৭ জুন, ২০২৪
  • ২০ বার পড়া হয়েছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: মধ্য গাজার নুসাইরাত জাতিসংঘের একটি স্কুলে শরণার্থী শিবিরে ইসরায়েলি বিমান হামলায় অন্তত ৩৫ জন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন আরও অনেকে। এতে ক্লাসরুম থেকে বেডরুমে, ফিলিস্তিনি শিশুরা ধ্বংসস্তূপ এবং রক্তে মাখা গদির মধ্যে দিয়ে ঘোরাঘুরি করছে।

শুক্রবার (৭ জুন) ভোরে ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুদের জন্য জাতিসংঘের তৈরি শরণার্থী শিবিরেে এ হামলা চালানো হয়।

সেখানে আশ্রয় নেওয়া শত শত বাস্তুচ্যুত মানুষের মধ্যে একজন প্রত্যক্ষদর্শী গাজা শহরের নাইম আল-দাদাহ বলেছেন, আমি লোহার টুকরো উড়তে দেখেছি এবং সবকিছু পড়ে যাচ্ছে। আমাদের সাথে যা ঘটেছে তা অকল্পনীয়।

ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী বলেছে,২০ থেকে ৩০ জনের মধ্যে হামাস এবং ইসলামিক জিহাদ যোদ্ধাদের লক্ষ্য করার জন্য একটি নির্ভুল, বুদ্ধিমত্তা-ভিত্তিক হামলা চালিয়েছে, যারা হামলার পরিকল্পনা এবং শুরু করার জন্য স্কুলটিকে একটি মঞ্চের জায়গা হিসাবে ব্যবহার করছিল।

তবে হামাস পরিচালিত সরকারি মিডিয়া অফিস বলছে, নিহতদের মধ্যে ১৪ শিশু ও নয়জন নারী রয়েছে। এর আগে, চিকিৎসকরা বিবিসির সাথে কাজ করা একজন স্থানীয় সাংবাদিকের কাছে অনুরূপ সংখ্যা জানিয়েছিলেন।

যুদ্ধের সময়, ইসরায়েল বারবার হামাসকে স্কুল, হাসপাতাল এবং অন্যান্য বিল্ডিংগুলিতে তাদের অপারেটিভদের লুকিয়ে রাখার অভিযোগ করেছে। তবে বেসামরিক নাগরিকদের মানব ঢাল হিসাবে ব্যবহার করার অভিযোগ গোষ্ঠী অস্বীকার করেছে হামাস।

আল-দাদাহ নামে এক শরণার্থী বলেছেন, জাতিসংঘের একটি প্রতিষ্ঠানে থাকা তার পরিবারকে কোন সুরক্ষা দেয়নি। তিনি বলেন, বিশ্ব আমাদের সাথে দ্বৈত আচরণ করছে। ইসরায়েল সব আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছে।

ইসরায়েল তার যুদ্ধ পরিচালনার জন্য ক্রমবর্ধমান কূটনৈতিক বিচ্ছিন্নতার সম্মুখীন হয়েছে, তার বিরুদ্ধে দুটি আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা রয়েছে।

ইসরায়েল প্রতিরক্ষা বাহিনীর (আইডিএফ) মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল পিটার লার্নার সাংবাদিকদের বলেছেন, নুসিরাত স্কুলে অবস্থিত কিছু ফিলিস্তিনি সশস্ত্র যোদ্ধা ৭ অক্টোবরের হামলায় জড়িত ছিল।

বিবিসি জানিয়েছে, হতাহতদের রাতারাতি নুসিরাত থেকে নিকটবর্তী দেইর আল-বালাহের আল-আকসা শহীদ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হযয়েছে। সাম্প্রতিক দিনগুলোতে এলাকায় তীব্র ইসরায়েলি বোমাবর্ষণ ও গোলাবর্ষণের পর শত শত আহত মানুষের চিকিৎসা করতে হিমশিম খাচ্ছে।

হাসপাতালটি এর আগে একটি বৈদ্যুতিক জেনারেটরের ব্যর্থতার কথা জানিয়েছিল, যা রোগীদের চিকিৎসা করা কঠিন করে তুলবে।

হাসপাতালে সহায়তাকারী ডক্টরস উইদাউট বর্ডারস (এমএসএফ) এর মেডিক্স বিশৃঙ্খল দৃশ্য বর্ণনা করেছে। এতে বলা হয়েছে যে আগের ২৪ ঘণ্টায় কমপক্ষে ৭০ জন মৃত ব্যক্তিকে আনা হয়েছে এবং ৩০০ জনেরও বেশি আহত হয়েছে, যাদের বেশিরভাগই মহিলা এবং শিশু।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক বাংলার খবর
Theme Customized By BreakingNews